Home / খেলাধুলা / ভারতকে ৫৩ রানে গুটিয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের যুবারা!

ভারতকে ৫৩ রানে গুটিয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের যুবারা!

ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে নাকাল হচ্ছে বড়রা, অন্যদিকে ভারতে খেলতে গিয়ে দারুণ সাফল্য ছোটদের। কলকাতার ইডেন গার্ডেনে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে দুরন্ত পারফরম্যান্স উপহার দিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

আজ (মঙ্গলবার) ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ ‘বি’ দলকে মাত্র ৫৩ রানে গুটিয়ে দিয়ে ১৮১ রানের বড় ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশের যুবারা। দেশে ফিরছে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি নিয়ে। এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের দুই প্রতিপক্ষ ছিল ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দুটি দল- ‘এ’ এবং ‘বি’ নামে।

ফাইনালে ‍উঠে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ ‘বি’ দল। যেখানে টস জিতেছিল ভারতই। প্রথমে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশ অবশ্য পুরো ওভার ব্যাট করতে পারেনি। তবে মারমুখী খেলে ৪১.৪ ওভারেই ২৩৪ রানের সংগ্রহ গড়ে অলআউট হয় সফরকারিরা। দলের পক্ষে ৯১ বলে ৯৩ রানের চোখ ধাঁধানো ইনিংস খেলেন আইচ মোল্লা।

ভারতীয় বোলারদের তোপে ১১৫ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল বাংলাদেশ। সেখান থেকে দশ নম্বর ব্যাটসম্যান আশিকুর জামানকে নিয়ে পাঁচে নামা আইচ মোল্লার দুর্দান্ত ব্যাটিং। অষ্টম ‍উইকেটে ৯৪ রানের জুটি গড়েন তারা।

আশিকুর ৫৮ বলে ৫ চার আর ২ ছক্কায় কাটায় কাটায় ৫০ করে আউট হন। সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে এসে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন আইচ মোল্লা। ৯১ বলে ১০ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় ৯৩ রান করেন এই ব্যাটার। এছাড়া প্রান্তিক নওরোজ নাবিল ২৮ আর ইফতিখার হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ১৭ রান।

জবাবে ১৫ রানের মধ্যে ভারতের ৪ উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ যুব দল। সফরকারি বোলারদের তোপে একদমই সুবিধা করতে পারেননি ভারতীয় ব্যাটাররা। কেবলমাত্র দুই ব্যাটার দুই অংক ছুঁতে পেরেছেন। উদয় সরন ২৬ আর কৌশল তাম্বে করেন ১১ রান।

বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল নাইমুর রহমান নয়ন। ১৬ রানে ৪ উইকেট শিকার করেন এই স্পিনার। আশিকুর রহমান ৮ রানে ২টি এবং তানজিম হাসান সাকিব ৪ রানে নেন ১ উইকেট।

Check Also

‘ব্যাড বয়’ কথাটা আমার সঙ্গে আসলেই আর যায় না: সাব্বির

দেশের ক্রিকেটে সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার হিসেবেই আবির্ভাব হয়েছিল সাব্বির রহমান রুম্মনের। বেশ কিছু ম্যাচে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *